কোন পদবীর কি কাজ তার প্রাথমিক ধারনা

এসআর (SR)

এক জন এসআরকে মানুষের সংগে সুন্দরভাবে কথা বলা ও সু- সম্পর্ক বজায় রাখার গুনাবলী সম্পন্ন হতে হবে। তার পরিচিত সার্কেলের মধ্যে থেকে ২০০-৫০০ জন ব্যাক্তিকে কোম্পানির অনারেবল কাষ্টমার তৈরী করতে হবে।এই ২০০-৫০০ জন ব্যাক্তির কাছে কোম্পানীর বিভিন্ন সময়ে দেওয়া বিভিন্ন সুযোগ সুবিধাগুলি পৌছাতে হবে। পাট পণ্যের ট্রেনিং, পাম অয়েল ট্রি, নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য ও সাস্থ্য সেবা এই ৪টি প্রজেক্টের সেবাসমূহ ২০০-৫০০ জন লোকের কাছেই পৌছাতে হবে। এই কাজটুকু কোম্পানি থেকে ট্রেনিং নিয়ে সুন্দরভাবে  করতে হবে। এই কাজের উপর প্রত্যেকটি প্রজেক্ট থেকেই একটি নির্দিষ্ট হারে এক জন এসআর কমিশন পাবেন।কাজ করলে একজন এসআর মাসিক প্রায় ২৫০০০+ টাকা ইনকাম করতে পারবে।সকল কাজ অনলাইনেই সম্পন্ন হবে। একজন এসআর তার আইডি একাউন্টে লগিন করে এড কাস্টমারে গিয়ে অনারেবল কাস্টমারকে ইনলিস্টেড করবেন।এই অনারেবল কাস্টমাররা কোম্পানি থেকে যতই কেনাকাটা করুক তার উপর ৫% কমিশন এসআররা ঘরে বসেই পাবেন।একজন এসআর হিসাবে কোম্পানিতে আইডি একাউন্ট ক্রিয়েট করতে হলে ৫০০ টাকা অনলাইন সার্ভিস চার্জ (বাৎসরিক) প্রয়োজন ।আরও বিস্তারিত তার আইডি একাউন্ট হয়ে গেলে একাউন্টে ডুকে ও ট্রেনিং করে জানতে পারবেন।এখানে ক্লিক করে ভিডিওটি দেখে নিতে পারেন।

ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন  

ইউএস (US)

 একজন ইউনিট সুপারভাইজার(ইউএস)কে প্রথমেই তার অধিনস্থ 10 জন এসআর এর টীম গঠন করতে হবে এবং ১টি সার্ভিস পয়েন্ট নির্দিষ্ট করতে হবে।এক জন ইউএসকে তার অধিনস্ত এসআরদের টার্গেটপূরনে সহায়তা করতে হবে।এসআরদের সাপ্তাহিক কাজের রিপুর্ট অনলাইনেই হেড অফিস বা উদ্ধতন কর্মকর্তার(টিএম) কাছে সাবমিট করতে হবে।নিজের কর্মস্থল ইউনিয়নে একজন ডিলার/সার্ভিস পয়েন্ট উদ্যোক্তা নিযুক্ত করতে হবে যার কাছে কোম্পানি পণ্য পাঠাবে।সার্ভিস পয়েন্ট সম্বন্ধে আরও জানতে এখানে ক্লিক করুন।যাবতীয় কার্য ক্রম অনলাইনে করা হবে।অধিনস্ত এসআরসমুহ কাজ করলে একজন ইউএস মাসিক প্রায় ৩০,০০০+ টাকা ইনকাম করতে পারবে।টাকা আয়(জমা) এবং উত্তোলন আইডি একাউন্টের মাধ্যমেই করতে হবে।একজন ই্উএস হিসাবে কোম্পানিতে আইডি একাউন্ট ক্রিয়েট করতে হলে ৫০০ টাকা অনলাইন সার্ভিস চার্জ (বাৎসরিক) প্রয়োজন । আরও বিস্তারিত আইডিএকাউন্ট হওয়ার পরে ট্রেনিংএ জানতে পারবেন। আরও একটু ক্লিয়ার হওয়ার জন্য এই ভিডিওটি দেখতে পারেন।  

ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন

টিএম (TM)

একজন টেরিটরী ম্যানেজার(টিএম)কে প্রথমেই তার অধিনস্থ ১০ জন ইউএস এর টীম গঠন করতে হবে এবং ১টি সার্ভিস পয়েন্ট নির্দিষ্ট করতে হবে।এক জন টিএমকে তার অধিনস্ত ইউএসদের টার্গেটপূরনে সহায়তা করতে হবে। ইউ এসদের সাপ্তাহিক কাজের রিপুর্ট হেড অফিস বা উদ্ধতন কর্মকর্তার(ডিএম)এর কাছে অনলাইনে সাবমিট করতে হবে। মূলত অধিনস্থ ইউএসদের মোট টার্গেটই হল টিএম এর টার্গেট। ইউএসদের কাজের তদারকি করতে হবে।পাট পণ্যের উদ্যোক্তা ট্রেনিং এর ব্যাবস্থাপনা করতে হবে। নিজের কর্মস্থল থানায় একজন ডিলার/সার্ভিস পয়েন্ট উদ্যোক্তা নিযুক্ত করতে হবে যার কাছে কোম্পানি পণ্য পাঠাবে। সার্ভিস পয়েন্ট সম্পর্কে আরও জানতে এখানে ক্লিক করুন। সার্ভিস পয়েন্ট উদ্যোক্তা গন আলাদাভাবে বিক্রির উপর ৩% কমিশন প্রাপ্ত হবেন।যাবতীয় কার্যক্রম অনলাইনে করা হবে।অধিনস্ত ইউএস ও এসআরসমুহ কাজ করলে একজন টিএম এর মাসিক প্রায় ৫০,০০০+ টাকা ইনকাম করতে পারবে।টাকা আয়(জমা) এবং উত্তোলন আইডি একাউন্টের মাধ্যমেই করতে হবে।একজন টিএম হিসাবে কোম্পানিতে আইডি একাউন্ট ক্রিয়েট করতে হলে ৫০০ টাকা অনলাইন সার্ভিস চার্জ (বাৎসরিক) প্রয়োজনআরও বিস্তারিত আইডি একাউন্ট হওয়ার পরে ট্রেনিংএ জানতে পারবেন।আরও একটু ক্লিয়ার হওয়ার জন্য এই ভিডিওটি দেখতে পারেন। 

ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন

ডিএম (DM)

এক জন ডিএমকে তার অধিনস্ত ১০ জন টিএমদের নিয়ে টীম গঠন করতে হবে। টিএমদের সাপ্তাহিক কাজের রিপুর্ট হেড অফিস বা উদ্ধতন কর্মকর্তার(জেডএম) এর কাছে সাবমিট করতে হবে। মূলত অধিনস্থ টিএম,ইউএস ও এসআরের মোট মাসিক টার্গেটই হল ডিএম এর টার্গেট।অধিনস্ত টিএম, ইউএস ও এসআরসমুহ কাজ করলে একজন ডিএম এর মাসিক প্রায় ১০০০০০+ টাকা ইনকাম করতে পারবে। কখনও ফোন করে আবার কখনও স্বশরীরে গিয়ে টিএমদের কাজের তদারকি করতে হবে। সার্ভিস পয়েন্টে পন্য আনা নেওয়ার বিষয়টি সম্পূর্ণ ভাবে তদারকী করতে হবে। মার্কেটিং ট্রেনিং পরিচালনা করতে হবে। পাট পণ্যের উদ্যোক্তা ট্রেনিং এর ব্যাবস্থাপনা করতে হবে।কোম্পানির অফিস আদেশ অনুযায়ী একজন লিডার/কর্মকর্তা হিসাবে আরও অন্যন্য কাজ সুষ্টভাবে করতে হবে।ইনকাম সংক্রান্ত সকল লেনদেন আইডি একাউন্টের মাধ্যমে সম্পন্ন হবে তাই অনলাইন আইডি একাউন্ট বিষয়ে দক্ষ হতে হবে যাতে করে অন্যদের ও গাইডলাইন দিতে পারেন।একজন ডিএম হিসাবে কোম্পানিতে আইডি একাউন্ট ক্রিয়েট করতে হলে ৫০০ টাকা অনলাইন সার্ভিস চার্জ (বাৎসরিক) প্রয়োজনআরও বিস্তারিত আইডি একাউন্ট হওয়ার পরে ট্রেনিংএ জানতে পারবেন। আরও একটু ক্লিয়ার হওয়ার জন্য এই ভিডিওটি দেখতে পারেন। 

ভিডিও দেখতে এখানে ক্লিক করুন

 

ট্রেইনার

একজন ট্রেইনারকে তার পারদর্শীতানুসারে কাজ করতে হবে। কেউ কেউ মার্কের্টিং এর ট্রেনিং কেউ কেউ হস্ত শিল্পের ট্রেনিং, কেউ কেউ পাট পণ্যের ট্রেনিং, কেউ কেউ আইটি ট্রেনিং ইত্যাদি করাতে হবে। কাজের রিপুর্টিং, সাধারন একাউন্টস এবং অডিট  করতে হবে। ট্রেনিং করানোর সুবাদে অফিস আদেশ অনুসারে যে কোন জায়গায় যেতে হবে। ট্রেইনারকে প্রথম তিন মাস অফিস থেকে ট্রেনিং নিতে হবে।

নিয়োগ সংক্রান্ত বিবরনঃ অনলাইনে আবেদন করার পরে অফিস থেকে যাচাইবাচাই করা হবে (কাউকে ভিডিও কলের মাধ্যমে)। তার পর যোগ্য প্রার্থীকে মোবাইলে মেসেজের মাধ্যমে জানানো হবে। মেসেজ পেলে প্রথমেই 500 টাকা কোম্পানি নিধারিত ব্যংক বা বিকাশ এজেন্ট নাম্বারে প্রেরন করতে হবে অনলাইন সার্ভিস চার্জ বাবদ । তারপর কোম্পানি কর্তৃক ট্রেনিং এর জন্য কোম্পানির কর্পোরেট অফিসে ডাকা হবে। তিন মাস পর্যন্ত অনেকগুলো ট্রেনিং করে নিজেকে পরিপূর্ণ করতে হবে। তিন মাস পর থেকে চাকরী কনফার্ম করা হবে এবং যথারীতি দায়িত্ব পালন করতে হবে।